Thursday, August 2, 2012

When I Met An Old Lady

ঘটনাটা প্রায় মাস ছয়েক আগের কথা। রোজ কার মতো অফিস থেকে বাড়ি ফিরছি। বেহালা চৌরাস্তার বাস স্ট্যান্ডের সামনে দাড়িয়ে আছি অটোর জন্য। হঠাৎ, এক রকম আচমকা, পিছন থেকে এসে কে যেন আমার ডান হাতটা ধরল। আমি হতভম্ব! অবাক হয়ে পিছন ফিরে তাকালাম। দেখলাম এক বুড়ি ভদ্রমহিলা, মাথায় সাদা ছুল, বয়েশ ষাটের উপর হবে, আমার দিকে নিরুপায় হয়ে তাকিয়ে আছেন। দেখে মনে হল শরীরে কোনও ব্যামো আছে। বয়েশের ভারে নুইয়ে পড়েছে শরীর। আমার কিছু বলার আগেই, ওই প্রবীণা এক অদ্ভুত কাকুতির সুরে বললেন, “বাবা আমায় একটু রাস্তাটা পার করে দেবে? আমি চোখে ভাল দেখতে পাইনা। আর এত গাড়ি আসতে দেখে আমার ভয় লাগছে। একটু সাহায্য করো”। এই কথা বলে সেই মহিলা আমার হাতটা ধরেই রইলেন।
কোনও কথা না বলে, প্রবীণার হাত ধরে রাস্তাটা পার করলাম। ওই পারে গিয়ে বুড়ি ভদ্রমহিলা যেন স্বাস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন। হাতটা ছাড়িয়ে আমি চলে আসতে যাব, এমন সময় দেখি ওনার চোখে জল। উনি কাঁদছেন। কাঁদতে কাঁদতে আমার মাথায় হাত দিয়ে বললেন, “ভগবান তোমার মঙ্গল করুক। সুখি হও। আমার আশীর্বাদ রইল”। এই কথা বলে সেই মহিলা এক মুহূর্তও আর দাড়ালেনা। আমি অবাক। পিছন ফিরে রাস্তা পার করে অটো করে বাড়ি আসতে আসতে একটা কথাই ভাবছিলাম যে ওই অজ্ঞাত পরিচয় বুড়ি মহিলা কেন কাঁদলেন?

সেই দিনের পর থেকে, আজ পর্যন্ত আমার জীবনে বিশেষ পরিবর্তন হয়নি ঠিকই, কিন্তু তাও ছোট-বড় ভাল মুহূর্ত যখনই এসেছে মাঝে মাঝে ওই প্রবীণা কথা মনে পড়েছে। যেন এক অদৃশ্য কেউ একজন আমায় বলছে “সুখি হও”।
Post a Comment